1. [email protected] : admin2021 :
  2. [email protected] : AKASH :
  3. [email protected] : anisur : anisur rohman
  4. [email protected] : [email protected] :
সন্ত্রাস, দুর্বৃত্তায়ন ও সম্পদ লুন্ঠনকারী কোন মানুষ নামের দানবকে জনপ্রতিনিধী করবেন না- মেয়র আশরাফুল আলম লিটন - Dainikasharalo.com
শনিবার, ০৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০১:৪৩ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
বেনাপোলে বিজিবি-বিএসএফ সেক্টর কমান্ডার পর্যায়ে বৈঠক বেনাপোলে পৃথক অভিযানে মদ-ফেনসিডিল সহ গ্রেফতার ৩ ভারতে জেল খেটে দেশে ফিরল তিন যুবক ও দুই যুবতী বেনাপোল সীমান্তে ৩ কেজি ৩৫০ গ্রাম স্বর্ণ উদ্ধার শার্শায় ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হয়ে এক নারীর মৃত্যু শার্শায় ফসলের মাটি গিলে খাচ্ছে ভাটা : প্রভাবশালী সহ জড়িয়ে রয়েছে ইউপি সদস্যরা বেনাপোল পুটখালি সীমান্ত থেকে প্রায় দুই কেজি স্বর্ণসহ আটক ২ হারানো ১ লক্ষ ৭০ হাজার টাকা উদ্ধার করে ফিরিয়ে দিয়ে প্রশংশিত বেনাপোল পোর্ট থানা পুলিশ ডিমলায় সরকারী রাস্তার সাইড কর্তন দেখার কেউ নেই শার্শায় সড়ক দুর্ঘটনায় সিএনজি যাত্রী এক তরুণের মৃত্যু হয়েছে




সন্ত্রাস, দুর্বৃত্তায়ন ও সম্পদ লুন্ঠনকারী কোন মানুষ নামের দানবকে জনপ্রতিনিধী করবেন না———- মেয়র আশরাফুল আলম লিটন

  • প্রকাশিত : বুধবার, ২৪ নভেম্বর, ২০২১
  • ৩০৩ বার পঠিত:

সন্ত্রাস, দুর্বৃত্তায়ন ও সম্পদ লুন্ঠনকারী কোন মানুষ নামের দানবকে জনপ্রতিনিধী করবেন না———- মেয়র আশরাফুল আলম লিটন
বেনাপোল প্রতিনিধিঃ
যশোর জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক বেনাপোল পৌর মেয়র আশরাফুল আলম লিটন বলেন, সন্ত্রাস, দুর্বাত্তায়ন ও সম্পদ লুন্ঠনকারীদের জনপ্রতিনিধি করবেন না। এরা আপনার ভোটে নির্বাচিত হয়ে সন্মানিত হয়ে আবার আপনাকে অপমান অপদস্ত করবে এরকম দুর্বৃত্তায়ন লোক সমাজের প্রতিনিধি হয়ে প্রতিনিধিত্ব করবে মানুষকে জিম্মি করে সে দিন শেষ। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা তার পিতার দেখানো স্বপ্নকে বাস্তবায়ন করতে ১৯৮১ সালে দিশে ফিরে ২৩ বার মৃত্যুর মুখ থেকে ফিরে এসেছে। তারপরও তিনি এদেশের জনগনকে ফেলে পালিয়ে যান নাই। তাই আপনারা বঙ্গবন্ধুর মত গর্জে উঠেন সামান্য কয়েকজন বোমাবাজ, অস্ত্রবাজ সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে। আমরা স্বস্তি, শান্তি ও উন্নয়নের শার্শা দেখতে চাই কোন দানব শাষিত রাজনীতি দেখতে চাই না।

শার্শার উলাশী ইউনিয়নের রামপুরবাজারে নৌকা মার্কার প্রার্থী রফিকুল ইসলাম এর নির্বাচনী জনসভায় প্রধান অতিথি হিসাবে এসব কথা বলেন মেয়র লিটন।

বুধবার বেলা ৫ টার সময় নৌকা প্রতীকের রামপুর বাজারের জনসভায় সভাপতিত্ব করেন ইউনিয়নের মেম্বার সুলতান আহম্দে বাদশাহ।

বেনাপোল পৌর মেয়র আশরাফুল আলম লিটন বলেন, যাকে আমরা মায়া করে ভালবাসা দিয়ে ভোট দিয়েছি আর সেই যদি আবার আমাদের প্রতি অন্যায় অত্যাচার, জুলুম নির্যাতন মামলা হামলা করে তবে তাকে কি আবার ভোট দিয়ে আমরা নির্বাচিত করতে পারি। তার মধ্যে রয়েছে ওই পাকিস্থানী প্রেতাতœাদের আতœা। আপনারা জানেন ১৯৭০ সালের নির্বাচনের মধ্যে দিয়ে যখন জাতির জনক নৌকা মার্কায় বিজয়ী হয় তখন ওই পাকিস্থানীরা মতা হস্তান্তর না করায় পরের বছর ১৯৭১ সালে রক্তয়ী যুদ্ধের মধ্যে দিয়ে এদেশ স্বাধীন হয়। আর এই স্বাধীন রাষ্ট্রের পতাকা কিছু উড়াতে ওই জামাত এর লোকদের সহযোগিতা করেছে এই দেশের কিছু পাকিস্তানী দোসররা। এখনও তারা ষড়যন্ত্র করে যাচ্ছে । তেমনি একজন রাজনৈতিক দানব এসেছে এই শার্শার মাটিতে । আপনারা জানেন সে আবারও নানা ষড়যন্ত্র, নানা কৌশল নানা ফন্দি ফিকির আটছে । তাই তার প্রতারণা থেকে আপনারা সাবধান থাকবেন।

মেয়র লিটন বলেন, জাতির জনক ১৯৯৬ সালে মতায় আসার পর দেখলেন তার পিতার স্বপ্ন বাস্তবায়ন করতে হবে। তাই তিনি এদেশের হতদরিদ্র ভ্যান চালক, কুলি ও জুতা পালিশ করে জীবিকা নির্বাহের মুক্তিযোদ্ধা বাবাদের জন্য চালু করেছেন মুক্তিযোদ্ধা ভাতা। তিনি চালু করেছেন বয়স্ক ভাতা, বিধবা ভাতা, প্রতিবন্ধী ভাতা, মাতৃত্ব ভাতা। আজ যখন তিনি দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে তখন ওই জামাত বিএনপি থেকে আসা লোক আওয়ামীলীগের নেতা কর্মীদের উপর চালাচ্ছে অত্যাচার জুলুম। আপনারা এই অপশক্তির বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ান। তিনি আরো বলেন জাতির জনকের কন্যা যখন শার্শার উলাশী ইউনিয়নে রফিকুলকে নৌকা প্রতীক দিয়েছেন তখন তার বিরুদ্ধে বিদ্রোহী প্রার্থী হিসাবে দাঁড়িয়েছে আয়নাল হক। এই আয়নাল হক জামাত থেকে এসে দুইবার নৌকা প্রতীকের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। তার অত্যাচারে অনাচারে অতিষ্ঠ হয়েছে শার্শাবাসি। আজ শার্শার উলাশী ইউনিয়ন বাসি তার কাছে জিম্মি। সে যখন নৌকা পায়নি আসন্ন নির্বাচনে; তখন সে জননেত্রীর বিপে অবস্থান নিয়ে আনারস প্রতীকে নির্বাচন করছেন। ইতিমধ্যে এই আয়নাল নৌকার কয়েকটি অফিস ভাংচুর করেছে। তাই আজকের জনসভায় উলাশী বাসি তার বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ হয়ে তার বন্দী দশা থেকে জিম্মি দশা থেকে মুক্ত হওয়ার জন্য রামপুর বাজারের এই মাঠে জন¯্রােতের ঢল নামিয়েছেন। আমি বলতে চাই সামান্য দুই চারটা অস্ত্রবাজদের বিরুদ্ধে আপনারা রুখে দাড়ান। দেখবেন তারা পালাবে। আমি এই ইউনিয়ন বাসির কাছে দাবি করব আগামি ২৮ তারিখের নির্বাচনে আপনারা আয়নাল হককে প্রতিহত করে নৌকা প্রতীকে ভোট দিয়ে রফিকুলকে বিজয়ী করবেন। কারন আয়নাল হক এখনো কন্যাদাহ মাঠে ৪ হজার বিঘা জমি দখল করে মাছ চাষ করছে। অসহায় মানুষ হাহাকার করছে তাদের লিজের টাকার জন্য । তাই অত্যাচারীর জবাব হবে ভোটের মাধ্যেমে। আমি মনে করি আয়নাল সম্প্রতি যে, আওয়ামীলীগ নেতা গোলাম হোসেনকে রক্তাক্ত করেছে। তার রক্তের মধ্যে দিয়ে আজ উলাশী স্বাধীন। আর আয়নালরা দাপিয়ে বেড়াবে না। তিনি আরো বলেন যে ব্যক্তি নিজে ভালো থেকে অন্যকে কষ্ট দেয় সে জনপ্রতিনিধি নামের কলঙ্ক। এই ইউনিয়নের সহ শার্শা উপজেলার আওয়ামীলীগের দুঃসময়ের কান্ডারী শহিদুল আলমকে ও সে অপমান অপদস্ত করতে ও এই আয়নাল পিছপা হয়নি। যার হাত দিয়ে তিনি আওয়ামীলীগে এসেছিলেন তাকে সে অপমান করে সে মার অযোগ্য একজন মানুষ।

এসয় উপস্থিত ছিলেন শার্শা উপজেলা আওয়ামীলীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ইলিয়াছ আযম, দপ্তর সম্পাদক আজিবর রহমান, কোষাধ্যা খোদাবক্স, বনও পরিবশে বিষয়ক সম্পাদক শেখ সরোয়ার, বেনাপোল পৌর প্যানেল মেয়র সাহাবুদ্দিন মন্টু, আওয়ামীলীগ নেতা হায়দার আলী গগন বেনাপোল পৌর আওয়ামীলীগের ৯ নং ওয়র্ড এর সাধারন সম্পাদক আশাদুজ্জামান আশা সহ যুবলীগ, ছাত্রলীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতা কর্মীরা।

 




এই পোস্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ




স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২২    বিঃদ্রঃ গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের নিয়ম মেনে তথ্য মন্ত্রণালয়ের অধীনে নিবন্ধনের জন্য অপেক্ষামান।

 
Theme Developed By ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!