1. [email protected] : admin2021 :
  2. [email protected] : AKASH :
  3. [email protected] : anisur : anisur rohman
  4. [email protected] : [email protected] :
সংসারের হাল ধরতে বিদেশ গিয়ে আত্নহত্যার অভিযোগ যুবতীর বিরুদ্ধে - Dainikasharalo.com
বৃহস্পতিবার, ০৬ অক্টোবর ২০২২, ০৯:২৩ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
কয়রা উপজেলায় আশ্রয়ন প্রকল্পের রাস্তার বেহাল দশা বেনাপোল বন্ধন ব্লাড ফাউন্ডেশন এর ১ম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন বেনাপোল সীমান্ত থেকে পিস্তল,গুলি,ম্যাগজিন সহ আটক ০১ বেনাপোলে ০৩ মামলার সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামী গ্রেফতার শার্শার জামতলা বাজারে মায়া ডিজিটাল ষ্টোডিওতে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড বেনাপোলে পুলিশের অভিযানে ভারতীয় গাঁজা সহ আটক ৩ প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ বেনাপোলে সাংবাদিকদের সাথে বিজিবির মত বিনিময় সভা যশোরিয়ান ব্লাড ফাউন্ডেশন এর উদ্দেগে ব্লাড গ্রুপ ও মেডিকেল ক্যাম্পেইন আয়োজন ​আমাদের বেতন ভাতা পোশাক সব কিছু জনগনের ট্যাক্সের টাকায় — এসপি প্রলয় কুমার জোয়ার্দার




সংসারের হাল ধরতে বিদেশ গিয়ে আত্নহত্যার অভিযোগ যুবতীর বিরুদ্ধে

  • প্রকাশিত : বৃহস্পতিবার, ৭ জুলাই, ২০২২
  • ২৩ বার পঠিত:

বেনাপোল প্রতিনিধিঃ
ছোট বেলায় পিতার ফেলে যাওয়া মেয়ে বৃদ্ধ মায়ের অভাব অনটনের সংসারের কষ্ট ঘোচানোর জন্য বিদেশ গিয়ে আত্নহত্যা করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। যশোর সদর উপজেলার দেওড়া ইউনিয়নের ডুমদিয়া (ফকির পাড়া) গ্রামের আলম মন্ডল এর মেয়ে জেসমিন আক্তার গত ৮ মাস আগে সৌদি যায় সংসারের হাল ধরার জন্য। একই গ্রামের ঝরনা নামের সৌদি প্রবাসী তাকে ভিসা দিয়ে নিয়ে যায়। সম্প্রতি জেসমিন বাসা বাড়িতে কাজ করতে করতে আত্নহত্যা করেছে বলে এমন সংবাদ পাঠি^য়েছে মৃত্যুর দুইদিন পর ঝরনা বেগম। এ ব্যাপারে যশোর কোতয়ালী থানায় জেসমিন আক্তার এর খালাত ভাই আসাদুর রহমান ঝর্না বেগমের স্বামী কামারুল ইসলামকে আসামি করে অভিযোগ দায়ের করেছে।

জেসমিনের মা নুরজাহান বেগম বলেন, মেয়ে ছোট থাকতে আমাকে ও মেয়েকে ফেলে ওর পিতা চলে যায়। সেই থেকে পরের বাড়ি কাজ কর্ম করে জেসমিনকে বড় করে তুলি। এখন কাজ করতে না পারায় মেয়ে ধার দেনা করে অভাবের সংসারকে সচল করার জন্য পাড়ি জমায় সৌদি আরবে। পাশের বাড়ির ঝরনা বেগম সৌদি থাকে সেই তাকে ভিসা দিয়ে একটি বাসা বাড়ির কাজ দেয়। মেয়ে আমাকে কয়েক দফা ফোন করে জানায় এ বাসায় অনেক নির্যাতন, অত্যাচার হয়। এরপর একদিন বলে আমাকে ঝরনা ওই বাড়ির থেকে পালানোর নির্দেশ দিলে আমি পালিয়ে আসি। এরপর ঝরনা যে বাসায় কাজ করে সে বাসার মালিকের ছেলের বাসায় কাজ দেয়। গত ১/০৭/২২ ইং তারিখে ঝরনা ফোন করে জানায় জেসমিন আত্নহত্যা করেছে। কি কারনে কেন আত্নহত্যা করেছে তা না জানিয়ে বলে লাশ সৌদি পুলিশ হেফাজতে রয়েছে। নুরজাহান বেগম বলেন ৫০ হাজার টাকা বেতন চুক্তিতে জেসমিন কামরুল ও তার স্ত্রী ঝরনার মাধ্যেমে সৌদি পাড়ি জমায়। গত ৮ মাসে তার মেয়ে যে টাকা রোজগার করেছে তা সব ঝরনার কাছে দিয়েছে আমার কাছে পাঠানোর জন্য। ঝরনা ওই টাকা পাঠাতে নানা ধরনের টালবাহানা করে। আমাদের সন্দেহ হচ্ছে ঝরনার কার সাজিতে আমার মেয়েকে হয়ত হত্যা করা হয়েছে। সে কেন আত্নহত্যা করবে। সে জানে তার বৃদ্ধ মা ঘরে আছে। এছাড়া আমি একটি কুড়ে ঘরে থাকি ঝরনা জানে। পাশে তার বাড়িতে সে বড় বিল্ডিং হাকিয়েছে। অথচ আমার মেয়ের রোজগারের টাকা সে পাঠাচ্ছে না। ঝরনা এদেশ থেকে মেয়েদের নিয়ে যায় বলেও নুরজাহান বেগম অভিযোগ করেন। তিনি বলেন আমি আমার মেয়ে আত্নহত্যা করেছে এরকম ছবি চাইলে ঝরনা আমাকে গালাগালি করে। কারন তারা দুই জনে একই জায়গায় থাকত।

এদিকে ঝর্নার বাড়িতে যেয়ে কামারুলকে পাওয়া যায়নি। তবে ঝর্ণার ছেলে আজাহারুল ও সৌদি প্রবাসী। সে এ প্রতিবেদককে ফোনে জানায় জেসমিন মোবাইলে বিভিন্ন লোকের সাথে কথা বলত। সে আত্নহত্যা করেছে এটা সঠিক। লাশ ও পুলিশের কাছে আছে। আমার মা ঝর্ণাকে অযথা দায়ি করা হচ্ছে। আমার মা কেন এর সাথে জড়িত থাকবে।
ঝরনাকে তার মোবাইল ফোনে কয়েকবার ফোন করলেও তার কোন সংযোগ পাওয়া যায়নি।

অভিযোগের তদন্ত কর্মকর্তা যশোর কোতয়ালী থানার এস আই আলিমুজ্জা¥মান বলেন, বিষয়টি অত্যান্ত জটিল। এ বিষয়টি তিয়ে দেখা হচ্ছে কি ভাবে জেসমিন মারা গেছে।
সরেজমিনে যশোর সদর উপজেলার ডুমদি ফকিরপাড়া গ্রামে যেয়ে দেখা গেছে একটি ছোট্ট কুড়ে ঘরে বসবাস করে ঝরনা বেগম। মাটির এ ঘরটি ঝড় বৃষ্টি জোরে হলে পড়ে যেতে পারে। সেখানে মেয়ের শোকে কাঁদতে কাঁদতে জেসমিনের মা অসুস্থ হয়ে পড়েছে। গ্রামের লোকজন নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন জেসমিন আত্নহত্যা করেছে না তাকে হত্যা করা হয়েছে বিষয়টি রাষ্ট্রিয় ভাবে দেখা উচিৎ।
মোঃ আনিছুর রহমান




এই পোস্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ




স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২২    বিঃদ্রঃ গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের নিয়ম মেনে তথ্য মন্ত্রণালয়ের অধীনে নিবন্ধনের জন্য অপেক্ষামান।

 
Theme Developed By ThemesBazar.Com