1. [email protected].com : admin2021 :
  2. [email protected] : AKASH :
  3. [email protected] : anisur : anisur rohman
  4. [email protected] : [email protected] :
শহর পরিচ্ছন্ন রাখার জন্য বেনাপোল বিজিবি ইমিগ্রেশনও কাস্টমসে ডাষ্টবিন বিতরণ - Dainikasharalo.com
বৃহস্পতিবার, ০২ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৭:১৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
বেনাপোলে বিজিবি-বিএসএফ সেক্টর কমান্ডার পর্যায়ে বৈঠক বেনাপোলে পৃথক অভিযানে মদ-ফেনসিডিল সহ গ্রেফতার ৩ ভারতে জেল খেটে দেশে ফিরল তিন যুবক ও দুই যুবতী বেনাপোল সীমান্তে ৩ কেজি ৩৫০ গ্রাম স্বর্ণ উদ্ধার শার্শায় ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হয়ে এক নারীর মৃত্যু শার্শায় ফসলের মাটি গিলে খাচ্ছে ভাটা : প্রভাবশালী সহ জড়িয়ে রয়েছে ইউপি সদস্যরা বেনাপোল পুটখালি সীমান্ত থেকে প্রায় দুই কেজি স্বর্ণসহ আটক ২ হারানো ১ লক্ষ ৭০ হাজার টাকা উদ্ধার করে ফিরিয়ে দিয়ে প্রশংশিত বেনাপোল পোর্ট থানা পুলিশ ডিমলায় সরকারী রাস্তার সাইড কর্তন দেখার কেউ নেই শার্শায় সড়ক দুর্ঘটনায় সিএনজি যাত্রী এক তরুণের মৃত্যু হয়েছে




শহর পরিচ্ছন্ন রাখার জন্য বেনাপোল বিজিবি ইমিগ্রেশনও কাস্টমসে ডাষ্টবিন বিতরণ

  • প্রকাশিত : রবিবার, ৬ মার্চ, ২০২২
  • ২৫৩ বার পঠিত:

বেনাপোল প্রতিনিধিঃ
শহর পরিস্কার পরিচ্ছন্ন রাখতে এবং পরিচ্ছন্ন নগরী গড়তে ্েবনাপোল পৌর মেয়র আশরাফুল আলম লিটনের নির্দেশানায় মাঠে নেমেছেন পৌরসভার প্যানেল মেয়র সাহাবুদ্দিন মন্টু। রোববার বেলা ১ টার সময় তিনি বন্দরনগরী বেনাপোলের চেকপোষ্ট বিজিবি ক্যাম্প, ইমিগ্রেশন ও কাস্টমস এলাকার ঘুরে ঘুরে দেখেন। এসময় তিনি ভারত থেকে আসা পাসপোর্টযাত্রীদের কাগজ পত্র এবং সময় পেন এর জন্য তারা সাথে আনিত অনেক খাদ্যদ্রব্যর অবশিষ্ট অংশ কাস্টমস এর মধ্যে পড়ে থাকতে দেখে। অপরদিকে বিজিবির ক্যাম্পের সামনেও অনেক দর্শনার্থী ছবি তুলতে এসে জায়গাটি ময়লা করে রাখে বিভিন্ন ধরনের কাগজপত্র ফেলে। ইমিগ্রেশন থেকে বের হওয়ার পথেও একই ধরনের অপরিচ্ছন্নতা দেখে তিনি সাথে সাথে পৌরসভা থেকে ৪ টি ডাষ্টবিন দেন।

আর সকল বিষয় নিয়ে তিনি বিজিবি, ইমিগ্রেশন ও কাস্টমস কর্মকর্তাদের সাথে আলোচনা করেন। ময়লা আবর্জনায় অনেক রোগ প্রবাহিত হতে পারে। ময়লা থেকে মশা মাছির উপদ্রুপ বেড়ে যেতে পারে। আবার এসকল জায়গা পানের পিক দেখে সরকারী কর্মকর্তাদের সচেতনতার জন্য ছোট ছোট লিফলেট ভারত গমনের যাওয়া আসার পথে টানিয়ে রাখার পরামর্শ দেন।সকলকে ঐক্যবদ্ধভাবে এগিয়ে এসে শহরটাকে পরিচ্ছন্নতার জন্য তিনি সকল কর্মকর্তা কর্মচারীদের আহŸান জানান।

তিনি আরো বলেন নিজের বসার জায়গা নিজের রুম যেমন ঝকঝকে রাখা হয় তেমনি শহরকেও ঝকঝকে রাখতে হবে। যেখানে সেখানে ময়লা আবর্জান ফেলা যাবে না। বিনামুল্যে ডাষ্টবিন দেওয়া হচ্ছে ডাষ্টবিন সংরন করতে হবে। পৌর সভার কর্মচারীরা এসে সেসব মযলা আবর্জনা নিয়ে যাবে।
এসময় উপস্থিত ছিলেন বেনাপোল চেকপোষ্ট ইমিগ্রেশন ওসি তদন্ত ইয়িাছ হোসেন, চেকপোষ্ট কাস্টমস ইন্সপেক্টর নুর আলম, বিজিবি নায়েক ছানোয়ার হোসেন প্রমুখ।

 




এই পোস্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ




স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২২    বিঃদ্রঃ গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের নিয়ম মেনে তথ্য মন্ত্রণালয়ের অধীনে নিবন্ধনের জন্য অপেক্ষামান।

 
Theme Developed By ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!