1. [email protected] : admin2021 :
  2. [email protected] : AKASH :
  3. [email protected] : anisur : anisur rohman
  4. [email protected] : [email protected] :
বেনাপোল বন্দরের প্রাচীরের পিলার পোতায় হামানের আঘাতে ঝুঁকিতে রয়েছে বসবাসরত প্রায় ১০ টি বাড়ি - Dainikasharalo.com
বুধবার, ০৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৭:৫২ অপরাহ্ন




বেনাপোল বন্দরের প্রাচীরের পিলার পোতায় হামানের আঘাতে ঝুঁকিতে রয়েছে বসবাসরত প্রায় ১০ টি বাড়ি

  • প্রকাশিত : রবিবার, ২২ মে, ২০২২
  • ২৯০ বার পঠিত:

আশাদুজ্জামান আশা
বেনাপোল স্থল বন্দরের প্রাচীর নির্মানের পিলার গভীর মাটির নিচে প্রবেশ করানোয় ঝুকিতে রয়েছে প্রাচীর এর পাশের প্রায় ৮ /১০ টি পাকা বাড়ি। সিমেন্ট বালু ও রড এর তৈরী বড় বড় পিলার প্রি-কাষ্ট এর মাধ্যেমে গভীর মাটির নীচে বসানোর সময় ওই পিলারের মাথায় অত্যাধুনিক মেশিন এর সাহায্য হামান দিয়ে বাড়ি মারার সময় আশে পাশের বাড়ি ঘর কেঁপে উঠছে। এবং ওই সকল বাড়ি ঘর ফাটল ধরেছে বলে অভিযোগ করেছে ভুক্তভোগি পরিবার।

সরেজমিনে দেখা গেছে বেনাপোল বন্দরের বড় আঁচড়ার ৩৪ নং শেডের পিছনে স্থল বন্দর কর্তৃপ সীমানা প্রাচীর নির্মান করছে। ওই সীমানা প্রাচীর এর পাশে রয়েছে কয়েক যুগের বসবাস রত পরিবার। ইতি মধ্যে সেখানে নতুন পাকা ঘরবাড়ি ও নির্মান হয়েছে। তার মধ্যে প্রায় ৮/১০ টি এক তলা পাকা ঘর পিলার বসানোর সময় হামানের বাড়িতে ফেটে গেছে। প্রতিটি হামানের বাড়িতে ওই সব ভবনের প্লাষ্টার পর্যন্ত খসে খসে পড়ছে।

ভুক্তভোগি পরিবার ইদ্রিস আলী, সুফিয়া, বাপ্পি সহ আরো অনেকে অভিযোগ করে বলেন, বন্দর কর্তৃপ যে প্রাচীর তৈরী করছে তাতে আমাদের বাড়ি ঘরের চরম তি হচ্ছে। যে কোন সময় তাদের প্রাচীরের পিলার পোতার সময় হামানের আঘাতের কারনে বাড়ি কেঁপে উঠে ফেটে যাচ্ছে এবং বাড়ি তৈরীর নির্মান সামগ্রী খসে খসে পড়ছে। আমরা বন্দর কর্তৃপরে নিকট অভিযোগ দিলে তারা আমাদের সাথে অসৌজন্য মুলক আচারন করছে। এছাড়া ওই পিলার পোতার কাজে হামিম ইন্টারন্যাশনাল ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের কর্মচারী দেলোয়ার সহ আরো কয়েকজন আমাদের সাথে খারাপ আচারন করে।

ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের কর্মচারী দেলোয়ার হোসেন বলেন, যদি ড্রিল করে এটা করা হতো তাহলে বাড়ি ঘরের তি হত না। এভাবে পিলার পুতলে বাড়ি ঘরের তি হবে। তবে এটা দেখার বিষয় আমাদের নয়। কর্তৃপকে ভুক্তভোগি পরিবারগুলি বিষয়টি অভিযোগ আকারে জানালে তারা যে সিদ্ধান্ত নিবে সেই মোতাবেক আমরা কাজ করব।

ঘটনাস্থলে বেনাপোল বন্দরের সহকারী উপ- পরিচালক রুবেল হোসেন বলেন আমি কয়েকটি বাড়ি দেখেছি তাতে ওই সব বাড়ি ঘরের ক্ষতি হচ্ছে। বিষয়টি উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের নিকট জানাব।

বেনাপোল বন্দরের উপ-পরিচালক মামুন কবির তরফদারকে বিষয়টি জানতে চেয়ে কয়েকবার ফোন দিলেও তিনি ফোন রিসিভ করেন নাই।

 




এই পোস্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ




স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২২    বিঃদ্রঃ গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের নিয়ম মেনে তথ্য মন্ত্রণালয়ের অধীনে নিবন্ধনের জন্য অপেক্ষামান।

 
Theme Developed By ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!