1. [email protected] : admin2021 :
  2. [email protected] : AKASH :
  3. [email protected] : anisur : anisur rohman
  4. [email protected] : [email protected] :
বেনাপোল পৌরসভায় প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা নিয়োগ - Dainikasharalo.com
বৃহস্পতিবার, ০৬ অক্টোবর ২০২২, ১০:৪৮ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
কয়রা উপজেলায় আশ্রয়ন প্রকল্পের রাস্তার বেহাল দশা বেনাপোল বন্ধন ব্লাড ফাউন্ডেশন এর ১ম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন বেনাপোল সীমান্ত থেকে পিস্তল,গুলি,ম্যাগজিন সহ আটক ০১ বেনাপোলে ০৩ মামলার সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামী গ্রেফতার শার্শার জামতলা বাজারে মায়া ডিজিটাল ষ্টোডিওতে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড বেনাপোলে পুলিশের অভিযানে ভারতীয় গাঁজা সহ আটক ৩ প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ বেনাপোলে সাংবাদিকদের সাথে বিজিবির মত বিনিময় সভা যশোরিয়ান ব্লাড ফাউন্ডেশন এর উদ্দেগে ব্লাড গ্রুপ ও মেডিকেল ক্যাম্পেইন আয়োজন ​আমাদের বেতন ভাতা পোশাক সব কিছু জনগনের ট্যাক্সের টাকায় — এসপি প্রলয় কুমার জোয়ার্দার




বেনাপোল পৌরসভায় প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা নিয়োগ

  • প্রকাশিত : মঙ্গলবার, ১০ আগস্ট, ২০২১
  • ১৫২ বার পঠিত:
বেনাপোল পৌরসভায় প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা নিয়োগ

বেনাপোল প্রতিনিধি:
বেনাপোল পৌর সভাকে আরো গতিশিল এবং উন্নয়নের জন্য মেয়র আশারাফুল আলম লিটন স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মোঃ তাজুল ইসলাম এর নিকট সম্প্রতি এক জুম মিটিংয়ে বেনাপোল পৌরসভায় প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) দাবি করেন। তারই ধারাবাহিকতায় দেশের সর্ববৃহৎ স্থলবন্দর বেনাপোল পৌরসভায় প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা পদে নিয়োগ পেয়েছেন মোজাম্মেল হক চৌধুরী। আগে মেয়রের পরে মর্যাদার দিক থেকে ছিলেন একজন সচিব। এখন মেয়রের পর পদ মর্যাদায় থাকবেন প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা।
গত ৮ আগস্ট জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের উপসচিব আবু কায়সার খান স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে এ নিয়োগ দেওয়া হয়। মোজাম্মেল হক খুব শিগগির বেনাপোল পৌরসভায় যোগদান করবেন বলে জানা গেছে। এর আগে তিনি চট্রগ্রাম আগ্রাবাদ সার্কেলে সহকারী কমিশনার (ভূমি) পদে কর্মরত ছিলেন।

দেশের স্থানীয় সরকার ব্যবস্থা সংস্কার ও ঢেলে সাজানোর উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। দেশের প্রথম শ্রেণির পৌরসভাগুলোতে প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) হিসেবে প্রশাসন ক্যাডারের কর্মকর্তাদের নিয়োগ দেওয়ার উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় বলছে, পৌরসভার সার্বিক কার্যক্রম গতিশীল করতে এবং স্বচ্ছতা আনতে এই উদ্যোগ। তাঁদের মতে, আমলাতন্ত্রকে শক্তিশালী করতে পৌরসভায় সিইও নিয়োগ দেওয়া হচ্ছে।
দেশের অধিকাংশ পৌরসভার আয়ের ঘাটতি থাকায় কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতন-ভাতা অনিয়মিত। রাজস্ব আদায়ের অনেক ক্ষেত্র থাকার পরেও পৌরসভাগুলোর আয় বাড়ছে না। স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা বলছেন, প্রধান নির্বাহী না থাকায় পৌরসভার আয় বাড়ানোসহ প্রশাসনিক কাজে বিঘ্ন হচ্ছিল। পৌরসভার কার্যক্রমকে শৃঙ্খলায় আনতে প্রধান নির্বাহী নিয়োগ দেওয়া হচ্ছে।
জানা গেছে, ২০০৬ সালে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় বেনাপোল ইউনিয়নের ১১টা গ্রামের অংশ নিয়ে (৮.৬০ বর্গ মিটার আয়তনে ) বেনাপোল তৃতীয় শ্রেণীর পৌরসভা হিসাবে ঘোষণা করেন। ২০০৬ সালের ১৬ এপ্রিল থেকে বেনাপোল পৌরসভার প্রশাসক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন বিএনপি নেতা শামছুর রহমান। সেনা সমর্থিত তত্বাবধায়ক সরকারের আমলে তাকে সরিয়ে শার্শা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বশীর আহমদকে প্রশাসকের দায়িত্ব দেওয়া হয়। এরপর পর্যায়ক্রমে দায়িত্ব পালন করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার ড. আব্দুল হাকিম, কামরুল আরিফ। ২০১০ সালের ১ ডিসেম্বর তৃতীয় শ্রেণী থেকে ২য় শ্রেণীতে উন্নীত করা হয় বেনাপোল পৌরসভাকে ।

এরপর আওয়ামীলীগ সরকারের আমলে ২০১১ সালের ১৩ জানুয়ারী বেনাপোল পৌরসভার প্রথম নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। প্রথম ভোটে মেয়র নির্বাচিত হন আওয়ামী লীগ নেতা আশরাফুল আলম লিটন। ২০১১ সালের ২০ সেপ্টেম্বর বেনাপোল পৌরসভা প্রথম শ্রেণীর মর্যাদা পায় স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয় থেকে।

 




এই পোস্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ




স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২২    বিঃদ্রঃ গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের নিয়ম মেনে তথ্য মন্ত্রণালয়ের অধীনে নিবন্ধনের জন্য অপেক্ষামান।

 
Theme Developed By ThemesBazar.Com