1. dainikasharalo@gmail.com : admin2021 :
  2. sagor201523@gmail.com : AKASH :
  3. anisurrohman2012@gmail.com : anisur : anisur rohman
  4. qtvbanglanews2018@gmail.com : sagor201523@gmail.com :
বেনাপোল পৌরসভার নামজগ্রাম সাদিপুর সংযোগ সড়ক নির্মানে বাধা দেওয়ার অভিযোগ - Dainikasharalo.com
সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০২:৪৮ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
যশোরিয়ান ব্লাড ফাউন্ডেশন এর উদ্দেগে ব্লাড গ্রুপ ও মেডিকেল ক্যাম্পেইন আয়োজন ​আমাদের বেতন ভাতা পোশাক সব কিছু জনগনের ট্যাক্সের টাকায় — এসপি প্রলয় কুমার জোয়ার্দার ছাত্রীদের তোপের মুখে জবির হল খোলা রাখার সিদ্ধান্ত বেনাপোল চেকপোষ্ট কাস্টমস থেকে ১,৭০,০০০মার্কিন ডলার সহ দুইজন আটক বেনাপোল চেকপোষ্ট থেকে বিপুল পরিমান মার্কিন ডলার সহ দুই জন আটক দূর্গাপূজায় সম্প্রীতি নষ্ট করলে কঠোর ব্যবস্থা শার্শায় প্রেমিকের সাথে কিশোরী আটকের পর গণধর্ষনের অভিযোগে গ্রেফতার ২ কয়রায় গবাদিপশুর অবাধ বিচরণে ঘটছে দুর্ঘটনা, জনমনে অশান্তি  সাফে ইতিহাস গড়ে বীরবেশে দেশে চ্যাম্পিয়ন মেয়েরা শিশুদের উন্নয়নে কাজ করছে নড়াইল চাইল্ড ফোরাম




বেনাপোল পৌরসভার নামজগ্রাম সাদিপুর সংযোগ সড়ক নির্মানে বাধা দেওয়ার অভিযোগ

  • প্রকাশিত : মঙ্গলবার, ৭ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ১৩৯ বার পঠিত:
বেনাপোল পৌরসভার নামজগ্রাম সাদিপুর সংযোগ সড়ক নির্মানে বাধা দেওয়ার অভিযোগ

বেনাপোল প্রতিনিধিঃ
বেনাপোল পৌরসভার ধারাবাহিক উন্নয়ন এর মধ্যে গুরুত্বপূর্ন একটি কাজ হচ্ছে এলাকার রাস্তাঘাট উন্নয়ন। এই পৌরসভার কোন মানুষ বাড়ি থেকে যেন কাঁদা পায়ে রাস্তায় না যায় তার জন্য সর্বাধিক গুরুত্ব রয়েছে পৌরসভার। ধারাবাহিক রাস্তা ঘাট নির্মান কাজ অব্যাহতর মধ্যে নতুন করে নামাজগ্রাম ও সাদিপুর সংযোগ সড়ক এর জন্য প্রায় ৪শ মিটার রাস্তার কাজ শুরু করেছে পৌর কর্তৃপক্ষ। আর এই সময় মানুষ চলাচলের কাঁচা এই সড়কটি যাতে না হয় তার জন্য বাধা সৃষ্টি করে বাঁশ দিয়ে ঘিরে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে ওই গ্রামের ইদ্রিস হোসেন ও সিদ্দিক মিয়া নামে দুই সহোদর এর বিরুদ্ধে। এতে করে স্কুল কলেজ গামী ছাত্রছাত্রী সহ সাধারন মানুষ চলাচলের বাঁধা পড়েছে। এসব মানুষকে প্রায় ১ কিলোমিটার ঘুরে এসে যাতায়াত করতে হচ্ছে।

বেনাপোল পৌর সভার নামাজগ্রামের আলাউদ্দিন মোড়ল বলেন, বৃটিশ এর সময় থেকে এই কাঁচা সড়কটি সকলে ব্যবহার করছে। দুই পাশে যাদের বাড়ি রয়েছে তারা যাতায়াতের জন্য জায়গা ছেড়ে দিয়ে বাড়ি নির্মান করেছে। দীর্ঘ দিন আমাদের দাবি এই সড়কটি পাকা করনের জন্য বেনাপোল পৌরসভার কাছে। এখানে বর্ষা মৌসুমে চলাচল করা যায় না। পানি উঠে যায় রাস্তায়। কারন পাশে রয়েছে হাকর নদী। এছাড়া এর পাশে রয়েছে একটি কবর স্থান। এই কবর স্থানের পাশ দিয়ে রাস্তাটি গেছে সাদিপুর সংযোগ সড়কে।
নামাজ গ্রামের রিজিয়া বেগম এনামুল হক বলেন, গ্রামের মধ্যে এই পথটি দিয়ে আমার বাপ দাদারাও চলাচল করেছে। এখানে বর্ষা মৌসুমে কাদা জমে থাকে। বেনাপোল পৌর সভা মানুষ চলাচলের অনুপযোগি রাস্তাটি পাকাকরনের পদক্ষেপ নিলে বাধ সাজে সিদ্দিক ও তার ভাই।

এ ব্যপারে বিশিষ্ট সিএন্ড এফ ব্যবসায়ি কামরুজ্জামান বাবলু বলেন, এই রাস্তাটি নির্মান হলে এলাকাবাসির অনেক সুবিধা হবে। স্কুল কলেজ গামি ছেলে মেয়েরা বর্ষা মৌসুমে খুব অসুবিধায় পড়ে। প্রায় ১ কিলোমিটার তাদের ঘোরা লাগে। এছাড়া রাস্তাটি নির্মান হলে কৃষকরা সহজে এই সংযোগ সড়ক দিয়ে তাদের পণ্য কম খরচে বাজারে উঠাতে পারবে। এরকম উন্নয়ন মুলক কাজে বাধা সৃষ্টি করে বাঁশ দিয়ে ঘিরে দেওয়ায় এলাকাবাসি ফুসে উঠেছে বলে তিনি দাবি করেন। তিনি আরো বলেন আমরা রাস্তার জায়গা ছেড়ে দিয়ে এখানে বাড়ি করেছি। এখানকার প্রায় ৩০টি পরিবার রাস্তার জায়গা ছেড়ে দিয়ে বাড়ি করেছে। সরু এই পথটি কারো কাজে লাগবে না। শুধু মাত্র রাস্তাটি পাকা হলে সকলে যাতায়াত করতে পারবে। কিন্তু কারো কোন আপত্তি নেই শুধু মাত্র ওই একটি পরিবার বাঁধা সৃষ্টি করে উন্নয়নকে নস্যাৎ করার অপচেষ্টা করছে।

নামাজ গ্রামের ৫ ম শ্রেনীর ছাত্রী সানজিদা আক্তার বলেন, আমাদের স্কুলে যেতে খুব অসুবিধা হ্েচ্ছ। এই রাস্তা ঘিরে দেওয়ায় অনেক পথ ঘুরে আমাদের স্কুলে যেতে ও প্রাইভেট পড়তে যেতে হচ্ছে।
রাস্তার কাজে কেন বাধা প্রদান করা হচ্ছে এমন অভিযোগের ভিত্তিতে সিদ্দিক ও ইদ্রিসকে সরেজমিন ওই গ্রামে খোঁজ করলে পাওয়া যায়নি।

এ বিষয় বেনাপোল পৌর প্যানেল মেয়র সাহাবুদ্দিন মন্টু বলেন, এলাকার উন্নয়নে বেনাপোল পৌর সভা ধারাবাহিক ভাবে কাজ করে যাচ্ছে। রাস্তাঘাট নির্মানে এলাকাবাসির সহযোগিতার প্রয়োজন। তা না করে উন্নয়ন কাজে বাধা দেওয়া এবং জমির দাবি যারা করে তারা আসলে উন্নয়ন চায় না। তাছাড়া সাদিপুর নামজগ্রামের মধ্যে ওই সংযোগ সড়কটি নির্মানে এখানে কারো কোন অসুবিধা হওয়ার কথা নয়। এই রাস্তা দিয়ে স্বাধীনতার আগ থেকে মানুষ চলাচল করে। যারা বাধা দিচ্ছে তারা উন্নয়ন বিমুখ মানুষ।

 




এই পোস্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ




স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২২    বিঃদ্রঃ গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের নিয়ম মেনে তথ্য মন্ত্রণালয়ের অধীনে নিবন্ধনের জন্য অপেক্ষামান।

 
Theme Developed By ThemesBazar.Com