1. [email protected] : admin2021 :
  2. [email protected] : AKASH :
  3. [email protected] : anisur : anisur rohman
  4. [email protected] : [email protected] :
পাওনা টাকা চাইতে গিয়ে মিথ্যে ষড়যন্ত্রের শিকার বেনাপোলের আশা - Dainikasharalo.com
বৃহস্পতিবার, ০২ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৮:৪৪ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
বেনাপোলে বিজিবি-বিএসএফ সেক্টর কমান্ডার পর্যায়ে বৈঠক বেনাপোলে পৃথক অভিযানে মদ-ফেনসিডিল সহ গ্রেফতার ৩ ভারতে জেল খেটে দেশে ফিরল তিন যুবক ও দুই যুবতী বেনাপোল সীমান্তে ৩ কেজি ৩৫০ গ্রাম স্বর্ণ উদ্ধার শার্শায় ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হয়ে এক নারীর মৃত্যু শার্শায় ফসলের মাটি গিলে খাচ্ছে ভাটা : প্রভাবশালী সহ জড়িয়ে রয়েছে ইউপি সদস্যরা বেনাপোল পুটখালি সীমান্ত থেকে প্রায় দুই কেজি স্বর্ণসহ আটক ২ হারানো ১ লক্ষ ৭০ হাজার টাকা উদ্ধার করে ফিরিয়ে দিয়ে প্রশংশিত বেনাপোল পোর্ট থানা পুলিশ ডিমলায় সরকারী রাস্তার সাইড কর্তন দেখার কেউ নেই শার্শায় সড়ক দুর্ঘটনায় সিএনজি যাত্রী এক তরুণের মৃত্যু হয়েছে




পাওনা টাকা চাইতে গিয়ে মিথ্যে ষড়যন্ত্রের শিকার বেনাপোলের আশা

  • প্রকাশিত : বৃহস্পতিবার, ৩ মার্চ, ২০২২
  • ২৪০ বার পঠিত:

বেনাপোল প্রতিনিধিঃ
পাওনা টাকা চাইতে গিয়ে মিথ্যে ষড়যন্ত্রের শিকার হয়েছে বেনাপোলের আশানুর রহমান আশা নামে (২৩) এক তরুন। শার্শার আমতলা গাতিপাড়া গ্রামে গত ২৭ ফেব্রয়ারী তার পাওনা টাকা চাইতে গেলে দেনাদার সাকিলা বেগম তাকে ছাগল চোর বলে লোকজন জড় করে আটক করে মারধর করে। এরপর স্থানীয় লোকজন ও আশার অবিভাবকরা বিষয়টি নিয়ে আলোচনায় বসলে সাকিলা বেগম মাপ চায়। এঘটনায় ওই তরুন লজ্জায় মুখ দেখাতে পারছে না বলে তার পরিবার জানায়।
ভুক্তভোগির পিতা বেনাপোল বড়আচঁড়া গ্রামের শহিদুল ইসলাম জানায় তার ছেলে একজন কোরআনে হাফেজ। তার ছেলের পুর্ব পরিচিত সাকিলা বেগমকে ১০ হাজার টাকা প্রায় এক বছর আগে ধার দেয়। সেই টাকা দীর্ঘদিন অতিবাহিত হলেও দেয় না ওই নারী। এরপর গত ২৭ ফেব্র“য়ারী সাকিলা তাকে টাকা আনতে তার বাড়ি আমতলা গাতিপাড়া গ্রামে ডাকে। পুর্বে থেকে সাজিয়ে রেখে আশা যেই বাড়িতে প্রবেশ করে ওই নারী তখন ছাগল চোর ছাগল চোর বলে চিৎকার করতে থাকে। আশে পাশের লোকজন এসে আশাকে ধরে মারধর করলে আশা তার পাওনা টাকার কথা বলে। এরপর গ্রামের লোকের সাকিলার আচারণ সন্দেহ হলে তারা আশার অভিবাবককে সংবাদ দেয়। এরপর ঘটনার সত্যতা বেরিয়ে আসে।

স্থানীয় আবুল কালাম জানায় সাকিলা একজন খারাপ প্রকৃতির মানুষ। সে একজন চোরাচালানি। মদ গাজা ও ইয়াবার ব্যবসা করে থাকে। সে মাঝে মধ্যে পাসপোর্টের মাধ্যেমে ভারতে ও প্রবেশ করে। আবার সেখান থেকে নানা ধরনের পণ্য এনেও বিক্রি করে।

ভুক্তভোগি আশা জানায় পুর্ব পরিচিত সাকিলা বেগম তার কাছে বিপদে পড়ে ২০ হাজার টাকা ধার চায় প্রায় বছর খানেক আগে। সে তাকে ১০ হাজার টাকা ধার দেয় । এরপর সে এক সপ্তাহর কথা বলে আজো সেই টাকা না দিয়ে তাকে ঘুরাতে থাকে। ঘটনার দিন সে তাকে বাড়িতে টাকা আনতে যাওয়ার কথা বলে ডেকে নেয়। এরপর সে ষড়যন্ত্র মুলক ভাবে তাকে ফাসিয়ে দেয় ছাগল চোর হিসাবে। পরে সে মাপ চেয়ে নেয়। কিন্তু আমাকে যে অপবাদ দিয়েছে তা আমি কি ভাবে মেনে নিব।

 




এই পোস্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ




স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২২    বিঃদ্রঃ গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের নিয়ম মেনে তথ্য মন্ত্রণালয়ের অধীনে নিবন্ধনের জন্য অপেক্ষামান।

 
Theme Developed By ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!