1. [email protected] : admin2021 :
  2. [email protected] : AKASH :
  3. [email protected] : anisur : anisur rohman
  4. [email protected] : [email protected] :
দু‘মাস পর বেনাপোল দিয়ে শর্ত সাপেক্ষে চিকিৎসা সেবায় ভারত ভ্রমণের সুযোগ - Dainikasharalo.com
বুধবার, ০৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৮:৩১ অপরাহ্ন




দু‘মাস পর বেনাপোল দিয়ে শর্ত সাপেক্ষে চিকিৎসা সেবায় ভারত ভ্রমণের সুযোগ

  • প্রকাশিত : সোমবার, ২১ জুন, ২০২১
  • ৪৩৯ বার পঠিত:

বেনাপোল প্রতিনিধি :
ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা জারির মধ্যে প্রায় দু‘মাস পর বেনাপোল আন্তর্জাতিক চেকপোস্ট দিয়ে শর্ত সাপেক্ষে চিকিৎসা সেবায় ভারত ভ্রমণের সুযোগ পাচ্ছেন বাংলাদেশিরা। এর আগে নিষেধাজ্ঞার মধ্যে কেবল রাষ্ট্রীয় কাজে গমনাগমনে গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদেরই যাতায়াতের সুযোগ ছিল। সোমবার (২১ জুন) বেনাপোল বন্দর দিয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সুরক্ষা সেবা বিভাগের বহিরাগমন-২ শাখার ছাড়পত্র নিয়ে মেডিকেল ভিসায় ভারতে গেছেন নয় বাংলাদেশি। আরও প্রায় ২ হাজার মানুষ ভারত যাওয়ার আবেদন করেছেন বলে জানা গেছে।
বাংলাদেশি যারা ভারত থেকে ফিরছেন তাদের বেনাপোলে ১৪ দিনের বাধ্যতামূলক প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হলেও এক্ষেত্রে ছাড় দেওয়া হয়েছে ভারত গমনকারী চিকিৎসাসেবা প্রত্যাশী বাংলাদেশিদের। যারা ভারতে যাচ্ছেন তাদের সেখানে কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হচ্ছে না, সরাসরি গন্তব্যে যেতে পারছেন তারা।
বেনাপোল চেকপোস্ট ইমিগ্রেশন সূত্রে জানা যায়, প্রতিবেশী দেশ ভারতে করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি পাওয়ায় গত ২৬ এপ্রিল থেকে দেশটিতে ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা জারি করে বাংলাদেশ সরকার। এতে বাংলাদেশিদের ভারত ভ্রমণ বন্ধ হয়ে যায়। এক্ষেত্রে বিশেষ করে জটিল রোগে আক্রান্তরা বেশি বিপাকে পড়েন। চিকিৎসা শেষ করাতে না পেরে অনেকে জীবন মৃত্যুর দ্বারপ্রান্তে পৌঁছান। এতে মানবিক বিষয় বিবেচনা করে সরকার চিকিৎসাসেবা প্রত্যাশীদের শর্তসাপেক্ষে ভারত ভ্রমণের সুযোগ দেয়। ভারত সরকারও ইতিবাচক সাড়া দিয়ে ভিসা দিচ্ছেন।
ভারত ভ্রমণের উদ্দেশ্যে বেনাপোল বন্দরে আসা বাংলাদেশি পাসপোর্ট যাত্রী পারভিন আক্তার বলেন, তার ছেলে জটিল রোগে আক্রান্ত। তিন মাস আগে একবার ভারতে গিয়েছিলেন চিকিৎসার জন্য। আবারও ডাক্তার আসতে বলেছিলেন। এতে তিনি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে ভারত ভ্রমণের অনুমতি চেয়ে আবেদন করে ছাড়পত্র পান। ৭২ ঘণ্টার মধ্যে করানো পরীক্ষায় নেগেটিভ সনদসহ বিভিন্ন শর্ত পালনের প্রতিশ্রুতি দিতে হয়েছে তাকে। প্রায় দুই হাজার মানুষ ভারতে যেতে আবেদন করেছেন বলেও জানান তিনি।
ভ্রমণকারী কয়েকজন পাসপোর্টযাত্রী বলেন, দেশে চিকিৎসাসেবা উন্নত না হওয়ায় এই কোভিডের ভয়াবহ পরিস্থিতির মধ্যে তাদের চিকিৎসা গ্রহণে বাধ্য হয়ে ভারতে যেতে হচ্ছে। দেশে চিকিৎসাসেবা উন্নত হলে ঝুঁকি নিয়ে হয়তো তাদের যাওয়ার প্রয়োজন হতো না। এতে যেমন খরচ কম লাগতো, তেমনি সময়ও বাঁচতো। সরকারকে দেশে চিকিৎসা ব্যবস্থা উন্নতির বিষয়টি গুরুত্ব দেওয়ার আহবান জানান যাত্রীরা।
বেনাপোল চেকপোস্ট ইমিগ্রেশন পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আহসান হাবিব জানান, বর্তমানে জটিল রোগে আক্রান্তরা স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ছাড়পত্র নিয়ে ভারতে যাওয়ার সুযোগ পাচ্ছেন। বাংলাদেশি যারা ভারত থেকে ফিরছেন তারা ভারতে নিযুক্ত বাংলাদেশ দূতাবাসের বিশেষ ছাড়পত্র নিয়ে ফিরছেন। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অনুমতি থাকলে যে কেউ যেতে পারবেন বলে জানান তিনি।
উল্লেখ্য, প্রথমে ভারতে করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি পেলে গত বছরের ১৩ মার্চ ভারত সরকার বাংলাদেশিদের ভারত ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা জারি করে। পরে করোনা পরিস্থিতি কিছুটা নিয়ন্ত্রণে আসলে প্রায় ৮ মাস পর তিনটি শর্ত দিয়ে ট্যুরিস্ট ভিসা বন্ধ রেখে বাংলাদেশি যাত্রীদের চিকিৎসা, ব্যবসা আর শিক্ষা গ্রহণে ভারত ভ্রমণের সুযোগ দেয়।
গত ২৩ এপ্রিল থেকে পুনরায় স্থলপথে ভারত-বাংলাদেশের মধ্যে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা জারি করে। এখনও পর্যন্ত সেই নিষেধাজ্ঞা জারি রয়েছে। তবে ছাড়পত্র থাকলেই যাতায়াতের সুযোগ মিলছে।

 

 




এই পোস্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ




স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২২    বিঃদ্রঃ গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের নিয়ম মেনে তথ্য মন্ত্রণালয়ের অধীনে নিবন্ধনের জন্য অপেক্ষামান।

 
Theme Developed By ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!