1. dainikasharalo@gmail.com : admin2021 :
  2. sagor201523@gmail.com : AKASH :
  3. anisurrohman2012@gmail.com : anisur : anisur rohman
  4. qtvbanglanews2018@gmail.com : sagor201523@gmail.com :
আওয়ামীলীগ নেতা মগর আলী হত্যাকান্ডে বেনাপোলে শোক মিছিল - Dainikasharalo.com
শুক্রবার, ১২ এপ্রিল ২০২৪, ০২:৪৪ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
ভারতীয় বাইক বিক্রিতে ফেসবুকে বিজ্ঞাপন, প্রতারিত হচ্ছে মানুষ বেনাপোলে ফেনসিডিল সহ আটক দুই মাদক ব্যবসায়ী বেনাপোলে বিজিবি-বিএসএফ সেক্টর কমান্ডার পর্যায়ে বৈঠক বেনাপোলে পৃথক অভিযানে মদ-ফেনসিডিল সহ গ্রেফতার ৩ ভারতে জেল খেটে দেশে ফিরল তিন যুবক ও দুই যুবতী বেনাপোল সীমান্তে ৩ কেজি ৩৫০ গ্রাম স্বর্ণ উদ্ধার শার্শায় ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হয়ে এক নারীর মৃত্যু শার্শায় ফসলের মাটি গিলে খাচ্ছে ভাটা : প্রভাবশালী সহ জড়িয়ে রয়েছে ইউপি সদস্যরা বেনাপোল পুটখালি সীমান্ত থেকে প্রায় দুই কেজি স্বর্ণসহ আটক ২ হারানো ১ লক্ষ ৭০ হাজার টাকা উদ্ধার করে ফিরিয়ে দিয়ে প্রশংশিত বেনাপোল পোর্ট থানা পুলিশ




আওয়ামীলীগ নেতা মগর আলী হত্যাকান্ডে বেনাপোলে শোক মিছিল

  • প্রকাশিত : রবিবার, ১৭ এপ্রিল, ২০২২
  • ৫০২ বার পঠিত:

বেনাপোল প্রতিনিধিঃ
বেনাপোল পৌর সভার ৪ নং কাগজপুকুর কাগমারি ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক মগর আলী হত্যাকান্ডে বেনাপোলে শোক নেমে এসেছে। যশোর সদর হাসাপাতাল থেকে পোষ্ট মর্টেম করে নিহতর লাশ বেনাপোল পৌর আওয়ামীলীগ কার্যালয়ে আসলে এক বেদনা বিধুর পরিবেশের সৃষ্টি হয়। এসময় যশোর জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক বেনাপোল পৌর মেযর ও আশরাফুল আলম লিটন ও দলীয় নেতা কর্মীরা দলীয় পতাকা ও পুস্পস্তবক অর্পন এর মাধ্যেমে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন ত্যাগি এ নেতার কফিনে। লাশ আসার পর সকাল থেকে অপেমান বেনাপোল পৌর আওয়ামীলীগও শার্শা উপজেলা আওয়ামীলীগ এর নেতা কর্মীরা কান্নায় ভেঙ্গে পড়ে। লাশ কাঁধে নিয়ে নেতা কর্মীরা পৌর সভার প্রধান প্রধান সড়ক প্রদনি করেন। এবং ”আমার ভাই মরল কেন” জবাব চাই জবাব চাই” শ্লোগানে আকাশ বাতাস ভারী করে তোলে। শনিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭ টার সময় মগর আলীকে সন্ত্রাসীরা কাগমারি গ্রামে ধারালো অস্ত্র দিয়ে হত্যা করে।

রোববার বেলা সাড়ে তিনটায় বেনাপোল পৌর আওয়ামীলীগের আয়োজনে শোক মিছিল করা হয়। এসময় যশোর জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক বেনাপোল পৌর মেয়র আশরাফুল আলম শোক মিছিলে অংশগ্রহন করেন।

এরপর বিকাল সাড়ে ৫টার সময় সাবেক ৯২৫ এর হ্যান্ডলিং শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি ও ৪ নং কাগজপুকুর কাগমারি ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক মগর আলীর জানাযে নামাজে অনুষ্ঠানে মেয়র আশরাফুল আলম লিটন বলেন, মগর আলী একজন অভাবী মানুষ ছিলেন, কিন্তু লোভী ছিলেন না। তিনি ছিলেন একজন সৎ আওয়ামী প্রেমী মানুষ। কোন দিন নিজের জন্য এই মানুষটি দলের কাছে নেতাদের কাছে কিছু দাবি করে নাই। তিনি এলাকার অসহায় গরীব দুঃখী নির্যাতিত নিপিড়ীত মানুষের জন্য কাজ করে গেছেন। সদা হাসিমুখের এই মানুষটি সকলের ভালবাসার মানুষ ছিলেন।বিএনপির সময় নির্যাতিত নিপিড়িত মগর আলী বার বার মার খাওয়ার পরও দীর্ঘ আন্দোলন সংগ্রামের মধ্যে দিয়ে আওয়ামীলীগের তথা বঙ্গবন্ধুর আদর্শ থেকে বিচ্যুতি হয়নি। তার নামে আজ পর্যন্ত কোন অপবাদ নেই । সে এই কাগমারি ওয়ার্ড এর গরীব সাধারন মানুষের জন্য যা কিছু পেরেছেন তাই দিয়েছেন দল ও তার সাধ্য মতো। মগর আলী শিীত লোক ছিলেন না কিন্তু তার কাজে কর্মে অনেক শিতি মানুষকে হার মানিয়েছে। এসময় মেয়র লিটন আরো বলেন, আজ শার্শায় বাংলাদেশ আওয়ামীগের নেতাকর্মীরা এক শ্রেনীর দানব দ্বারা নির্যাতিত নিপিড়িত। তিনি মাননীয় প্রধান মন্ত্রীর কাছে দাবি করেন এই শার্শা উপজেলার ইউনিয়ন চেয়ারম্যান সহ ৫৮ জন আওয়ামীলীগ, যুবলীগ ছাত্রলীগের নেতা কর্মী হত্যা হয়েছে। সর্বোশেষ হত্যাকান্ডের শিকার হলো মগর আলী। শার্শার এসব হত্যা কান্ডের বিচার দাবি করেন তিনি প্রধান মন্ত্রীর কাছে।

এর আগে বেলা সাড়ে ৪ টার সময় মগর আলীর নিজ গ্রাম কাগমারিতে লাশ নিয়ে গেলে এলাকার মানুষের মাঝে কান্নার রোল পড়ে। হাজার হাজার নারী পুরুষ ছুৃটে আসে অশ্র“সজল চোখে তাকে এক নজর দেখার জন্য। এসময় এলাকায় শোকের বন্যা বয়ে যায়।
মগর আলীর শোক মিছিলে ও জানাযা নামাজে অংশ গ্রহন করেন, শার্শা উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল মালেক, প্রচার সম্পাদক ইলিয়াছ আযম, দপ্তর সম্পাদক আজিবর রহমান, শ্রম বিষয়ক সম্পাদক শেখ কোরবান আলী, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মেহেদী হাসান, বেনাপোল পৌর প্যানেল মেয়র সাহাবুদ্দিন মন্টু প্রমুখ।
উল্লেখ্য গত শনিবার (১৬ এপ্রিল ) বেনাপোল পৌর আওয়ামীলীগ অফিস থেক ইফতারী শেষে বাড়ি যায় মগর আলী। এরপর আগে থেকে ওৎ পেতে থাকা সন্ত্রাসী হারুন, আরব আলী শামসুর রহমান জুয়েল, জাহাঙ্গীর সহ আরো কিছু দুবৃত্তরা মগর আলীকে ধারালো অস্ত্র দ্বারা কুপিয়ে হত্যা করে। এসময় মগর আলীকে তার ছেলে হোসেন ও পৌত্র ইয়াসিন ঠেকাতে আসলে তাদেরও কুপিয়ে মারাত্নক রক্তাক্ত যখম করে। হোসেন ও তার ছেরে ইয়াসিন যশোর ও খুলনা হাসপাতালে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে।
এ হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত থাকার অপরাধে বেনাপোল পোর্ট থানা পুলিশ কাগমারি গ্রামের শামসুর রহমান, জাহাঙ্গীর হোসেন, জুয়েল ও আম্বিয়াকে আটক করেছে।

বেনাপোল পোর্ট থানার ওসি কামাল হোসেন ভুইয়া বলেন, বেনাপোলের কাগমারি গ্রামে যে হত্যা কান্ড সংঘটিত হয়েছে তদন্ত পূর্বক এর সাথে যারা জড়িত তাদের আটক করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

 




এই পোস্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ




স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২২    বিঃদ্রঃ গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের নিয়ম মেনে তথ্য মন্ত্রণালয়ের অধীনে নিবন্ধনের জন্য অপেক্ষামান।

 
Theme Developed By ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!