সংবাদ শিরোনাম :
বেনাপোল ট্রাক টার্মিনালের কার্যক্রম ব্যর্থ করে দিতে অশুভ চক্রের অপতৎপরতা শার্শায় নারী কেলেংকারী দিয়ে টাকা আদায়ের চেষ্টা শার্শা ও বেনাপোল সীমান্তে পৃথক অভিযানে ৮৮ কেজি গাজা সহ আটক ১ জোহরা ফ্রি মেডিকেল ক্লিনিক ডক্টরেট ডিগ্রি’ নিয়ে মমতাজ এর যত কথা সর্বাত্নক লকডাউন পালনে বেনাপোলে কঠোরতা।। সাধারন জনজীবন বিপর্যস্ত শার্শায় মাকে ধর্ষন করতে না পেরে ৮ বছরের মেয়েকে ধর্ষন চেষ্টা করার অভিযোগ আলিম নামে এক নরপশুর বিরুদ্ধে বেনাপোল চেকপোষ্টের প্রধান ফটক দিয়ে চোরাচালানি পণ্য প্রবেশ।। কাজে বাধা দেওয়ায় কাস্টমস শুল্ক গোয়েন্দাকে মারপিট বড়াইগ্রামে সিলিন্ডার বিস্ফোরণে ভয়াবহ অগ্নিকান্ড  বেনাপোল ট্রাক টার্মিনাল এর শুভ উদ্বোধন করেন যশোর জেলা প্রশাসক
৭ মার্চ বঙ্গবন্ধুর উদ্দীপ্ত ঘোষনায় বাঙালি জাতি পেয়ে যায় স্বাধীনতার দিকনির্দেশনা——- মেয়র লিটন

৭ মার্চ বঙ্গবন্ধুর উদ্দীপ্ত ঘোষনায় বাঙালি জাতি পেয়ে যায় স্বাধীনতার দিকনির্দেশনা——- মেয়র লিটন

৭ মার্চ বঙ্গবন্ধুর উদ্দীপ্ত ঘোষনায় বাঙালি জাতি পেয়ে যায় স্বাধীনতার দিকনির্দেশনা——- মেয়র লিটন

বেনাপোল প্রতিনিধিঃ
ঐতিহাসিক ৭ মার্চ বাঙালি জাতির স্বাধীনতা সংগ্রাম ও মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসের এক অনন্য দিন। সুদীর্ঘকালের আপসহীন আন্দোলনের এক পর্যায়ে ১৯৭১ সালের এই দিনে তৎকালীন রেসকোর্স ময়দানে (বর্তমানে সোহরাওয়ার্দী উদ্যান) বিশাল জনসমুদ্রে দাঁড়িয়ে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামের ডাক দেন। এ দিন লাখ লাখ মুক্তিকামী মানুষের উপস্থিতিতে জাতির অবিসংবাদিত মহান নেতা বজ্রকণ্ঠে ঘোষণা করেন, ‘রক্ত যখন দিয়েছি রক্ত আরো দেব, এদেশের মানুষকে মুক্ত করে ছাড়বো ইনশাআল্লাহ। এবারের সংগ্রাম আমাদের মুক্তির সংগ্রাম, এবারের সংগ্র্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম।’ ৭ মার্চ বঙ্গবন্ধুর এই উদ্দীপ্ত ঘোষণায় বাঙালি জাতি পেয়ে যায় স্বাধীনতার দিকনির্দেশনা। বঙ্গবন্ধুর ডাকে সাড়া দিয়ে পাকিস্তানী হানাদার বাহিনীর বিরুদ্ধে ৯ মাসের সশস্ত্র মুক্তিযুদ্ধে বিজয়ী হয়ে ১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর বিজয়ের মধ্য দিয়ে স্বাধীনতা ছিনিয়ে আনে বাঙালি জাতি। বিশ্ব মানচিত্রে জন্ম নেয় স্বাধীন সার্বভৌম বাংলাদেশ। বঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চের ঐতিহাসিক ভাষণকে ২০১৭ সালের ৩০ অক্টোবর ইউনেস্কো “ডকুমেন্টারী হেরিটেজ” (বিশ্ব প্রামাণ্য ঐতিহ্য) হিসেবে স্বীকৃতি দেয়। কথাগুলো বললেন বেনাপোল পোর্ট ানার সামনে রোববার বেলা ৪ টার সময় বাংলাদেশ পুলিশ (বেনাপোল পোর্ট ানা পুলিশ) আয়োজিত বাংলাদেশ এলডিসি থেকে উন্নয়নশীল দেশে উত্তরনে জাতিসংঘের চুড়ান্ত সুপারিশে শান্তি আনন্দ উৎসবে ৭ ই মার্চ উপলক্ষে যশোর জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক বেনাপোল পৌর মেয়র আশরাফুল আলম লিটন।

এরপর বিকাল ৫ ঘটিকার সময় বেনাপোল পৌর আওয়ামীলীগ এর দলীয় কার্যালয়ে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ শার্শা শাখা ও বেনাপোল পৌর শাখা আয়োজিত ঐতিহাসিক ৭ মার্চ এর ভাষন উপলক্ষে আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন উপজেলা আওয়ামীলীগ সহসভাপতি শহিদুল আলম । এসময় প্রধান অথিথি হিসাবে মেয়র লিটন বলেন জাতির জনক বঙ্গবন্ধু ছিলেন একজন সরল উদার মানুষ। তার সেই দিনের সেই সরল হৃদয় থেকে যে ভাষনটি রেখেছিলেন তাতে সাড়ে ৭ কোটি বাঙালি একত্রিত হয়ে ঝাপিয়ে পড়েছিলেন মুক্তিযুদ্ধে। তিনি পৃথক আলোচনা অনুষ্টান সমাবেশে বলেন ১৯৭১ সালের এই ৭ মার্চ ছিল রোববার,২২ ফাল্গুন বসন্ত ঋতু। আজ ৫০ বছর পরও সেই দিন মাস ক্ষন কাকতালিয় ভাবে মিলে গেছে। বঙ্গবন্ধুর ভাষন যারা স্থির মস্তিস্কে শুনবে, তারা বুঝবে এরম মর্ম। তাহলে তারা প্রতিদিন এর নতুনত্বতা পাবে। সেই ভাষনে যা কিছু শুভ যা কিছু কল্যানকর তাই ছিল।এই ভাষনটি ইতিমধ্যে ১১ টি ভাষায় অনুবাদ করা হয়েছে। এই ভাষনটি ৪০ টি ভাষায় অনুবাদ করার প্রক্রিয়া চলছে। ইউনেস্কো যে ৭৮টি ভাষন লিপিবদ্ধ করছে । সেখানে বঙ্গবন্ধুর ভাষন রয়েছে ৪০ তম স্থানে। তিনি ছিলেন মানুষ পাগল। তিনি মায়া মমতা দিয়ে ভালবাসা দিয়ে এই জাতিকে মুক্তি করেছে। এই নিরন্তর সম্পৃক্তির উৎস হচ্ছে ভালবাসা। একটি মানুষ একটি জাতিকে কত বেশী ভালবাসতে পারে বঙ্গবন্ধু তার উদাহরন। পৃথিবীর কোন দেশে কোন নেতা তার মত জাতিকে ভালবাসতে পারে নাই। তার আকাঙ্খা ভালবাসা ছিল এই ভুখন্ডকে নিয়ে। এই ভুখন্ডে আমাদের ৩০ লক্ষ শহীদ হয়েছে ২ লক্ষ মা বোনের সম্ভম হানি হয়েছে। তিনি পাকিস্তানিদের বলেছিলেন যদি আপনারা যদি গুলি চালানো বন্ধ না করেন তাহলে আর আপনাদের সাথে মুখ দেখা দেখি হবে না। এই সহজ সরল কথা ছিল সেদিন বঙ্গবন্ধুর।

প্রধান অতিথি হিসাবে মেয়র লিটন আরো বলেন, বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের যে আহবানে বাঙালি জাতি দেশের ভৌগলিক অবস্থানকে মুক্ত করেছে; সেই আহবানে এবং বঙ্গবন্ধুর আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়েই আমরা তাঁর সুযোগ্য কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলাকে বাস্তবে রূপ দিতে চাই। আজ জাতির জনক এর কন্যা অনেক লড়াই সংগ্রাম করে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন। তিনি এসেছিলেন পাহাড়ি পথ দিয়ে। ঘাত প্রতিঘাতের মধ্যে দিয়ে আজ দেশকে তিনি উন্নয়নশীল রাষ্ট্রে পরিণত করেছে। তিনি বলেন ১৯৭৫ এর ১৫ আগষ্ট এর পর মানুষ যে প্রতিবাদ না করেছে জাতির জনক এর মৃত্যুর পর প্রকৃতি তার চেয়ে বেশী প্রতিবাদ করেছে।

বেনাপোল পোর্ট থানা আয়োজিত আনন্দ উৎসব অনুষ্টানে উপস্থিত ছিলেন বেনাপোল স্থল বন্দরের উপপরিচালক মামুন কবির তরফদার, বেনাপোল পৌর প্যানেল মেয়র সাহাবুদ্দিন মন্টু, পোর্ট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মামুন খান, ওসি (অপারেশন) আজিজুল হক ওসি (তদন্ত) রাছেল হোসেন, সাংবাদিক মহসিন মিলন, বীর মুক্তি যোদ্ধা তোফাজ্জেল হোসেন প্রমুখ।
বেনাপোল পৌর আওয়ামী দলীয় কার্যালয়ে উপস্থিত ও বক্তব্য ও রাখেন বেনাপোল পৌর আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত আহবায়ক আহসান উল্লাহ মাষ্টার, শার্শা উপজেলা আওয়ামীলীগের প্রচার সম্পাদক ইলিয়াছ আযম, কৃষি ও সমবায় বিষয়ক সম্পাদক আব্দুর রহমান, শার্শা উপজেলা ভাইচ চেয়ারম্যান মেহেদী হাসান, লক্ষনপুর ইউপি চেয়ারম্যান আনোয়ারা বেগম, উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক সেলিম রেজা বিপুল, নিজামপুর ইউনিয়ন এর সাবেক মেম্বার আশরাফুল আলম বাটুল, যশোর জেলা আওয়ামী সাংস্কৃতিক ফোরামের কার্যকরি সদস্য জাকির হোসেন আলম, বেনাপোল ৯ নং ওয়ার্ড আওয়ালীগের সাধারন সম্পাদক আশাদুজ্জামান আশা শার্শা উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম আহবায়ক সাইফুল ইসলাম সজল, প্রচার সম্পাদক এনামুল হক মুকুল প্রমুখ।

অনুষ্টানটি পরিচালনা করেন শার্শা উপজেলা আওয়ামীলীগের দপ্তর সম্পাদক আজিবর রহমান।

 

সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত-২০২১ -এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Theme Developed BY AMS IT & Solutions
error: Content is protected !!