সংবাদ শিরোনাম :
বেনাপোল স্থল বন্দরের ডরমিটরি ভবন এর উদ্বোধন মেয়র লিটন এর শোক বেনাপোলে রাষ্টীয় মর্যদায় বীর মুক্তিযোদ্ধা কওছার আলীর দাফন সম্পন্ন শার্শায়  নারী ব্যাংক কর্মকর্তা সহ তার পরিবারকে মারপিট করেছে দুবৃত্তরা বেনাপোলে অবৈধ সন্তানের জননী রাতের আঁধারে পালিয়েছে শার্শায়  নারী ব্যাংক কর্মকর্তা সহ তার পরিবারকে মারপিট করেছে দুবৃত্তরা সামাজিক দুরত্ব বজায় রেখে বেনাপোল ইউনিয়ন যুবলীগ নেতার উদ্যেগে শীতার্ত মানুষের মাঝে কম্বল বিতরন বেনাপোল কাস্টমসের নানা হয়রানির প্রতিবাদে ও সিঅ্যান্ডএফ কর্মচারীদের বিক্ষোভে আমদানি-রফতানি বন্ধ। ৫ ঘন্টা পর চালু বেনাপোল বন্দরে আমদানি রফতানি বানিজ্য বন্ধ রিজিওনাল মিউনিসিপ্যাল সাপোর্ট ইউনিট এলজিইডি খুলনা অঞ্চল আয়োজিত শহর সমন্ময় কমিটির কার্যাবলী সম্পাদনে সদস্যদের ভূমিকা শীর্ষক প্রশিক্ষণ”এর দ্বিতীয় দিন বেনাপোল পৌরসভায় টিএলসিসি ভুমিকা শীর্ষক প্রশিক্ষন অনুষ্ঠিত হয়েছে
অর্থের লোভে ধর্ষন নাটক সাজিয়ে যুবককে ফাঁসানোর চেষ্টা

অর্থের লোভে ধর্ষন নাটক সাজিয়ে যুবককে ফাঁসানোর চেষ্টা

অর্থের লোভে ধর্ষন নাটক সাজিয়ে যুবককে ফাঁসানোর চেষ্টা

বেনাপোল প্রতিনিধিঃ
অভাব অনটনের কথা ভেবে অর্থের লোভে ধর্ষন এর নাটক সাজিয়ে নিরিহ এক যুবককে হয়রানি করেছে বলে ভুল শিকার করেছে হাসনা খাতুন নামে এক যুবতী। দারিদ্রতার কষাঘাতে জর্জরিত হয়ে ঐ নারী নাভারন এনামুল হক নামে এক ব্যবসায়ীর বাসায় কাজ করে। গত জুন মাস থেকে সে এই বাসায় তিন মাস কাজ করার পর বেতন না নিয়ে উলাশি তার এক ফুপুর বাসায় যায়। ফুপু তাকে বেতনের টাকার জন্য চাপ প্রয়োগ করলে সে বলে আমি এক সাথে টাকা নিব। এরপর সে কারো প্ররোচনায় পড়ে তাকে ঐ বাড়ির মালিক এর ছেলে আজমল ফাহিম আবির ধর্ষন করেছে বলে শার্শা থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করে। এই অভিযোগের ভিত্তিতে মেডিকেল রিপোর্ট আসার আগেই আবিরকে পুলিশ আটক করে জেল হাজাতে পাঠায়।হাসনা খাতুন সাতক্ষীরা জেলার শ্যামনগর থানার হরিনগর গ্রামের আবুল কালামের মেয়ে।

বুধবার বিকেলে হাসনা খাতুন বলেন, আমি একজন অভাবি মানুষ। আমি ভেবে দেখলাম আবির হোসেনরা বড় লোক। তাদের বাসায় কাজ করছি এবং একসাথে বেতন নিব তারপর বাড়িতে একটি কাজ করব। পরে আমি উলাশি আমার ফুপুর বাড়ি যেয়ে মাথায় শয়তানি বুদ্ধি এনে অধিক টাকার আশায় শার্শা থানায় ধর্ষনের অভিযোগ করি স্থানীয় মিলন মেম্বর ও জালাল এর সহযোগিতায়। তবে থানায় আমার সাথে জালাল সহ আমার ফুপু ও আত্নীয়রা গিয়েছিল। আবির আমাকে ধর্ষন বা আমার সাথে কোন খারাপ আচারন করেনি। তার পরিবার এর সকলে আমার সাথে ভাল আচারন করে। আমি ওই বাড়িতে ৫ হাজার টাকা বেতনে গৃহ পরিচারিকার কাজে যোগদান করি। পরে কাজ বেশী দেখে আর একজনকে আমি সেখানে নিয়ে বেতন ভাগাভাগি করে নিব বলে সিদ্ধান্ত নেই।
কারো প্ররোচনায় পড়ে আপনি এ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন কিনা জানতে চাইলে হাসনা খাতুন বলে না আমি নিজেই মাথায় শয়তানী বুদ্ধি এনে এ কাজ করেছি। তবে নাম প্রকাশ না করার শর্তে জনৈক এক ব্যাক্তি বলেন অভাব অনটনের কথা আসলে ঠিক নয়। স্থানীয় উলাশি ইউনিয়ন এর একজন মেম্বর ও ঐ মেয়ের ফুপু অধিক টাকা আদায়ের জন্য ও বাড়ির মালিক এনামুল হককে সামাজিক ভাবে হেয় প্রতিপন্ন করার জন্য একাজে উদ্বুদ্ধ করেছে।

অভিযুক্ত আবির বলেন আমি কখনো এরকম কাজ করতে পারি না। আমাকে গত ৬ অক্টোবর থানায় অভিযোগ এর পর পুলিশ আটক করে। আর এই আটকের পর প্রায় ১০ দিন পর জেল খানা থেকে আমি জামিনে আসি। আমি যদি ধর্ষন করব তাহলে মেডিকেল রিপোর্ট পজিটিভ আসার কথা। আমরা রিপোর্ট হাতে পেয়েছি তাতে নেগেটিভ রিপোর্ট এসেছে। ধর্ষন এর কোন আলামত নেই।

আবির এর পরিবার থেকে তার মা বলেন, বর্তমানে হাসনার ফুপু তাকে দিয়ে বিভিন্ন অপকর্ম করার চেষ্টা করছে যা বাতাসে গুঞ্জন রয়েছে। মেয়েটি হয়ত তার ফুপুর কথায় রাজী হয়নি যার জন্য সে ভুল বুঝতে পেরে ফিরে এসে সত্য কথা শিকার করেছে। আমরা এর যথা যথ বিচার চাই আদালতের কাছে।

 

সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত-২০২০-এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Theme Developed BY AMS IT & Solutions
error: Content is protected !!