উপ-নির্বাচন দুর্গোৎসবে পেছাতে পারে রংপুর-৩ আসনের ভোট

উপ-নির্বাচন দুর্গোৎসবে পেছাতে পারে রংপুর-৩ আসনের ভোট

জাতীয় পার্টির প্রতিষ্ঠাতা হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের মৃত্যুতে শূন্য হওয়া রংপুর-৩ আসনে উপ-নির্বাচনের ভোটগ্রহণের তারিখ পরিবর্তন হতে পারে। বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদের রংপুর জেলার নেতৃবৃন্দের দাবির মুখে এ সিদ্ধান্ত নিতে যাচ্ছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।

জানা গেছে, মঙ্গলবার (৩ সেপ্টেম্বর) দুপুরে রংপুর জেলা প্রশাসক ও আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা বরাবর দেওয়া আবেদনপত্রের মাধ্যমে এ দাবি জানান পূজা উদযাপন পরিষদ।
সর্বশেষ তারিখ পরিবর্তন করার দাবিতে বৃহস্পতিবার (১২ সেপ্টেম্বর) রংপুর প্রেসক্লাবের সামনে জেলা বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ছাত্র-যুব ঐক্য পরিষদের উদ্যোগে প্রধান নির্বাচন কমিশনারের কাছে স্মারক লিপি প্রদান ও মানববন্ধন করা হয়।

শারদীয় দুর্গা উৎসব চলাকালীন রংপুর-৩ আসনের উপ-নির্বাচনে সনাতন হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের ভোট প্রদানে বিঘ্ন ঘটতে পারে, এমন আশঙ্কা করছেন তারা।

গত ১৪ জুলাই এরশাদের মৃত্যুত আসনটি শূন্য ঘোষিত হয়। নির্বাচন কমিশন ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী ৫ অক্টোবর ভোটগ্রহণ হবে। মনোনয়ন দাখিলের শেষ তারিখ ৯ সেপ্টেম্বর। যাচাই-বাছাই ১১ সেপ্টেম্বর, প্রার্থীতা প্রত্যাহার ১৬ সেপ্টেম্বর।

কমিশন সূত্র জানায়, পূজা উদযাপন পরিষদের চিঠিটি ইসি সচিবের কাছে পাঠানো হয়েছে। পরে চিঠিটি সিইসি’র কাছে পাঠানো হয়। বিকেলে কমিশনের বৈঠকে বিষয়টি নিয়ে সিদ্ধান্ত হবে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ইসির নির্বাচন পরিচালনা শাখার এক কর্মকর্তা বার্তাটোয়েন্টিফোর.কমকে জানান, নির্বাচনের তারিখ পেছানোর বিষয়টি বৃহস্পতিবার বৈঠকে আলোচনা হতে পারে। তবে পূজার মধ্যে ভোট করলে তেমন সমস্যা হওয়ার কথা নয়। তবুও পূজা উদযাপন কমিটির দাবির পরিপ্রেক্ষিতে ভোট পেছানো হতে পারে।

এ ব্যাপারে পরিষদের রংপুর জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক শ্রী ধীমান ভট্টাচর্য্য বলেন, ‘আগামী ৪ অক্টোবর থেকে ষষ্ঠীর মধ্য দিয়ে শারদীয় দুর্গোৎসব শুরু হবে। পরের দিন পূজার সপ্তমী। ওই দিন উপ-নির্বাচনের ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হলে রংপুর সদর ও মহানগরীর হিন্দু সম্প্রদায়ের ৭০ হাজার ভোটারের ভোট প্রদানে বিঘ্ন ঘটবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘ভোটের দিন (৫ অক্টোবর) হিন্দু ধর্মাবলম্বীগণ পূজা মণ্ডপে মণ্ডপে অঞ্জলী প্রদান করবে। ওই দিন ভোট হলে যানবাহন বন্ধ থাকবে। হিন্দু ধর্মাবলম্বীরা সবাই পূজা অর্চনা নিয়ে ব্যস্ত থাকবে। এছাড়া রংপুরে অনেক স্থানে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পূজা মণ্ডপ থাকে। যদি ভোটের দিন কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটে এর প্রভাব কী হবে, তা তো বলার অপেক্ষা রাখে না।’

শ্রী ধীমান ভট্টাচর্য্য বলেন, ‘আমরা চাই দুর্গোৎসবের কারণে যাতে ভোট প্রদানে বিঘ্ন না ঘটে এমন তারিখ নির্ধারণ করা হোক। এতে সবাই ভোট কেন্দ্রে গিয়ে ভোট দিতে পারবে।’

এদিকে নির্বাচনের তারিখ পরিবর্তন প্রসঙ্গে রংপুর অঞ্চলের আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা জিএ সাহাতাব উদ্দিন বলেন, ‘পূজা উদযাপন পরিষদ একটি লিখিত আবেদন করেছে। আমি তাদের আবেদনের বিষয়টি নির্বাচন কমিশনারসহ সংশ্লিষ্টদের অবগত করব।’

উল্লেখ্য, রংপুর সদর উপজেলা ও সিটি করপোরেশন নিয়ে গঠিত এ আসনের মোট ভোটার ৪ লাখ ৪২ হাজার ৭২ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ২ লাখ ২১ হাজার ৩১০ জন এবং ২ লাখ ২০ হাজার ৭৬২ জন নারী ভোটার।

আপনার মন্তব্য এই বক্সে লিখুন

সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত-২০১৮-এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি
Theme Developed BY AMS IT & Solutions